Wednesday, July 01, 2009

ঘুণ্টিঘর বা ঘুমটিঘর

ছোটবেলার স্কুলের সামনে দিয়ে চলে যাওয়া রাস্তাকে কেটে দিয়ে যেন চলে গেছে রেললাইন। তৈরি হয়েছে level crossing, বাংলায় যা হরহামেশাই রেলক্রসিং নামে পরিচিত। রেললাইনের দু'ধারে রাস্তার উপর দু'টি লোহার পাইপ। ট্রেন যাওয়া-আসার সময় নামানো হয়; পরে তুলে দেওয়া হয় যেন রাস্তা দিয়ে যাওয়া-আসা করা যায়। পুরোটার নাম অন্তত বাংলায় রেলগেট। সেই রেলগেটের পাশে লাল-ইঁটের একটি ছোট ঘর। একজন রেলের কর্মচারীও হয়ত থাকে। সবাই বলে সেইটেই নাকি ঘুণ্টিঘর, যেখান থেকে ট্রেনের যাওয়া-আসার ঘণ্টা বাজানো হয়। ঘুমটিঘর কথাটিও শোনা যায়।

পুরনো প্রায় সব অভিধানেই ঘুণ্টী শব্দের অর্থ ছোট ঘণ্টা বা বোতাম। কিন্তু ঘুণ্টী- বা ঘুণ্টিঘর শব্দটি পাওয়া যায় না। জ্ঞানেন্দ্রমোহন এবং বাংলা একাডেমির মতে ঘুণ্টিঘর হল (জামায়) বোতামের ঘর। বোতামের ঘর অর্থে ঘুণ্টিঘরাও পাওয়া যায়। বাংলাদেশের আঞ্চলিক ভাষার অভিধানে ঘুণ্টিঘর শব্দটিকে রাজশাহীর বলে দেখানো হয়েছে, অর্থ রেলের ক্রসিং, সাথে আছে ঘণিট শব্দটি দেখার নির্দেশ, যাকে রংপুরের বলে দেখানো হয়েছে, অর্থ রেল খালাসিদের থাকার ঘর। সেই একই অভিধানে ঘুনটি দোআন অর্থ চট্টগ্রামের ভাষায় পানের দোকান। হিন্দিতে घुमटी (ঘুমটী)-র দেখা মেলে, पुलिस की घुमटी (পুলিস কী ঘুমটী, পুলিশের ঠেক)।

2 comments:

দিব্য (Dibya) said...

আমরা পশ্চিমবঙ্গে "গুমটি (ঘর)" কথাটা ব্যবহার করি, ছোট (ঝুপড়ি) জাতীয় ঘর/বাড়ি বোঝাতে, যেখানে লোকে পাকাপাকিভাবে থাকে না। গুমটি দোকান (সে পানেরই হোক বা ঘুগনি মুড়ির), পুলিসের গুমটি, ইত্যাদি ... রেলগেটের গুমটিরও ব্যবহার আছে বলেই মনে হয়।

দিব্য (Dibya) said...

ওহ্‌ হ্যাঁ, অনেক সময় "bus terminus" অর্থেও "বাস গুমটি"-র ব্যবহার হয়। অনেক টার্মিনাসে বাসের আসা-যাওয়া ঘোষণা করার জন্যে বা টিকিট কাটার জন্যে একটা গুমটি ঘর থাকে। হয়তো সেখান থেকেই এসেছে কথাটা।